সর্বশেষ
Tue. May 21st, 2024

গ্রাহকেরা সঞ্চয়পত্র ভাঙাচ্ছেন বেশি, কিনছেন কম

সুতরাং উচ্চ মূল্যস্ফীতির চাপে পড়ে সঞ্চয় ভেঙে খাচ্ছেন একশ্রেণির বিনিয়োগকারী। আবার অতি হিসাবি বিনিয়োগকারী কর কাটার পর যা পাচ্ছেন, মূল্যস্ফীতি বিবেচনায় তাতে লাভ খুঁজে পাচ্ছেন না। আইএমএফের পরামর্শে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে ব্যাংকঋণের সুদহার বাড়ানো হয়েছে। সে জন্য কেউ কেউ সঞ্চয়পত্র ভেঙে উচ্চ সুদে ব্যাংকে আমানত রাখছেন বলে অনুমান করেন কোনো কোনো বিশ্লেষক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক প্রধান অর্থনীতিবিদ ও যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ইউনিভার্সিটি অব নিউইয়র্ক অ্যাট কোর্টল্যান্ডের অর্থনীতির অধ্যাপক বিরূপাক্ষ পালের সঙ্গে ১৫ এপ্রিল মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মানুষের অতিরিক্ত সঞ্চয় কমেছে। তাই তাঁরা বাধ্য হয়ে সঞ্চয় ভেঙে খাচ্ছেন। অন্যদিকে মূল্যস্ফীতির চাপ আছে। মূল্যস্ফীতির কারণে সঞ্চয় বেশি হারে ক্ষয় হয়ে যাচ্ছে। মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে ব্যাংকে আমানতের সুদের হার যখন বাড়ছে, তখন সঞ্চয়পত্র বিনিয়োগের জন্য অনাকর্ষণীয় হয়ে গেছে।

বিরূপাক্ষ পাল বলেন, ব্যাংকের সুদের হার যখন ৬ থেকে ৮ শতাংশ পর্যন্ত ছিল, তখন সঞ্চয়পত্রের সুদ ছিল গড়ে ১১ শতাংশ। এ থেকে যে বাড়তি আয় আসত, এখন সে সুযোগ কম। ব্যাংকের আমানতের সুদের হার বেশি হলে সঞ্চয়পত্রে মানুষের বিনিয়োগ কমবেই। ফলে সঞ্চয়পত্রের নিট বিক্রিতে প্রভাব পড়বে।

By News 24

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *